Uncategorized

আপনিও আসক্ত হয়ে যাচ্ছেন না তো অনলাইন গেমে!!!!!

আসসালামু আলাইকুম। কেমন আছেন? আশা করি সবাই ভাল আছেন। আমিও ভালো আছি।

১ দশক আগের কথা যখন মানুষ খেলা হিসাবে রিয়েল লাইফে অনেক মজাদার খেলা (যেটাকে এখন আধুনিকায়ন করে গেম বলি) খেলতো। যে গেমগুলো শরিরের সাথে ছিলো মানানসই। একদিকে যেমন অই গেম গুলো খেললে মন মানুসিকতা সুস্থ থাকতো তেমনি শরিরেও সুস্থ থাকতো কেউ আক্রান্ত হতো না যটিল কোনো রোগে। তখন কার বিকাল টা ছিলো আনন্দে ভরা। বিকাল হলেই মনে হত আজকে আমি এই বিকালেই থাকবো মনে মনে যেনো তখন সবারই একটা প্রার্থনা থাকে আজকে যেনো বিকাল টা একটু দেরিতে শেষ হয়। তবুও যেনো খুব তারাতারিই শেষ হয়ে যায় সেই আনন্দ ময় বিকাল টি। আসলেই সেই সময় গুলো এখন আর ফিরে পাওয়া সম্ভব না।

এত্তক্ষন আমি ছিলাম ১ দশক আগে। চলুন এবার প্রযুক্তির উন্নয়নের সাথে সাথে আমাদের সেই অতীত এর খেলা গেম গুলো হারিয়ে গিয়েছে। আর এখন আ,বিষ্কার হয়েছে অনলাইন গেম। এখন আপনি হয়তো অনলাইন গেম সম্পর্কে জানে না এমন কাউকে খুজে পাবেন না।

চলুন এখন শুরু করি অতিতের সেই স্মৃতির সাথে বর্তমানের কিছু তুলনা।

আগে বিকাল হলেই সাবাই মাঠে যায় এখনো সবাই মাঠে যায় কিন্তু সাথে থাকে ইয়া বড় একটা অ্যান্ড্রয়েড মোবাইল। তারপর অতিতে যখন শুরু হত প্লেয়ার ভাগ করে ক্রিকেট বা ফুটবল টিম বানানো আর এখন অই সময়ে শুরু হয় স্কোয়াড বানানোর কাজ। তারপর যখন অতীতে খেলা শুরু হয় নিজের হাত পা ব্যাবহার করে এখনো হাত পা ব্যাবহার করে খেলা হয় তবে সেই অলস হাত [পা] গুলো থাকে সেই মস্ত বড় মোবাইলটার উপর। যেখানে শরির সুস্থ রাখার জন্য শুরু হয় ছিলো খেলা ধুলো আর এখন নিজের অঙ্গপ্রতঙ্গের ক্ষতি করে তারা দিব্বি খেলে যাচ্ছে ফ্রি ফায়ার আর পাবজির মত অনলাইন গেম গুলো। আমাদের বাংলাদেশে প্রচন্ড ভাবে ছড়িয়ে যাচ্ছে এই গেমটি।

বাংলাদেশে বর্তমানে এই অনলাইন গেম খেলার প্লেয়ার হলো । যা দিন দিন বেড়েই চলেছে। আমাদের উচিত গেম খেলা তবে এমন পরিমানে খেলা উচিত না যাতে এই গেম এর জন্য জন্য আপনারি কোনো ক্ষতি না হয়।আমদের উচিত গেম গুলো কে বেশি বেশি না খেলা এতে আমাদের অনেক ক্ষতি হতে পারে। এই গেম গুলো খেলতে আমাদের প্রায় সব থেকে বেশি মনোযোগ দিতে হয়।

দীর্ঘক্ষণ এই গেম গুলো খেললে আমাদের যা যা ক্ষতি হতে পারে তা নিয়া একটু আলোচনা করে আসি।

এই গেম গুলো খেলতে হয় মোবাইল ফোন ধরে যার মাধ্যমে আমাদের অনেক ক্ষতি হতে পারে। আমরা যখন মোবাইল টিপি তখন আমদের চোখে মোবাইলের আলো চোখে পরে দীর্ঘ সময় ধরে এই আলো চোখে পরলে আমাদের চোখের মারাত্মক ক্ষতি হতে পারে। এমন কি আপনি খুব কম সময়ে চোখে কম দেখতে পারেন। এই গেমে যখন আপনি প্রবেশ করবেন তখন আপনাকে পুরো পুরি মনোযোগ দিতে হবে যদি আপনি এভাবে আপনার মনোযোগ একটা জিনিসের মাঝেই দিয়ে থাকেন তাহলে আপনার ব্রেনের ক্ষতি হতে পারে।এই গেম গুলোতে বেশি আসক্ত হচ্ছে স্কুল কলেজের ছাত্র ছাত্রী রা। বর্তমানে স্কুল কলেজ বন্ধ। তাই সাবাই এসব অনালাইন গেম এর প্রতি এভাবে আসক্ত হচ্ছে। আমরা সবই বুঝি আমদের এরকম গেম গুলো তে বেশি পরিমানে সময় দেয়া উচিত নয়। আমাদের এমন কিছু মনোভাব তৈরি করা যাতে ওই গেম টি আপনাকে নিয়ে না খেলতে পারে। আপনি ওই গেমটি খেলতে পারেন।

আজকে এ পর্যন্তই। পরিশেষে এই কথা টাই বলবো আসুন মাঠে যাই অনলাইন গেম থেকে বের হয়ে আসি।

আমাদের সাইটটিতে প্রতিনিয়ত এরকম ভালো ভালো টিপস এবং ট্রিক্স পেতে ভিজিট করুন। এটি সাইটটি ভালো লাগে তাহলে আপনাদের বন্ধুদের কে ইনভাইট করবেন যেন সাইটে ভিজিট করে।

তাহলে আজকে এ পর্যন্তই ভালো থাকুন সুস্থ থাকুন আমাদের সাইটের সঙ্গেই থাকুন আল্লাহ হাফেজ।

admin

আমি সাগর। আমি একজন ব্লগার এবং ইউজার ইন্টারফেজ ডিজাইনার। আমি প্রতিনিয়ত চেষ্টা করি আমার ব্লগের মাধ্যমে নতুন নতুন তথ্য শেয়ার করতে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button