Android

দ্রুত গতিতে ফাইল শেয়ার করুন গুগল ফাইলের মাধ্যমে!!

আসসালামুয়ালাইকুম কেমন আছেন আপনারা সবাই আশা করি আপনারা সবাই ভাল আছেন আমিও ভাল আছি তা আমাদের ওয়েব সাইটটি ভিজিট করার জন্য আপনাদের স্বাগত জানাই আজকে আমি আপনাদের সামনে আরো একটি গুরুত্বপূর্ণ টিউটোরিয়াল নিয়ে হাজির হয়েছি তাহলে চলুন শুরু করি

আধুনিক এই যুগে মানুষ এখন আধুনিক প্রযুক্তির সাথে পুরো পুরি সংযুক্ত। মোবাইল ফোন ব্যাবহার করে না এমন লোক খুজে পাওয়া খুব কঠিন হবে। এখন প্রয়োজনের তাগিদে সবাই প্রযুক্তির সাথে সম্পৃক্ত। এখন আমাদের অনেক লোকের প্রযুক্তির মাধ্যমে তাদের দৈনন্দিন কাজ করে যাচ্ছে এখন সবাই প্রযুক্তির উপর বেশি নির্ভরশীল হয়ে পড়েছে এখন প্রযুক্তি ছাড়া একটা দিনও কল্পনা করা যায় না আমাদের একটি দিনের শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত সবই প্রযুক্তির উপর নির্ভর করে

আজকে আপনাদের সামনে একটি প্রযুক্তিনির্ভর টিউটোরিয়াল নিয়ে হাজির হয়েছি আবার আজকে আমরা এই টিউটোরিয়াল এর মাধ্যমে আপনাদের দেখাবো কিভাবে গুগলের মাধ্যমে অফলাইনে থেকে যে কারো সাথে ফাইল শেয়ার করবেন তাহলে দেরি কিসের চলুন শুরু করি

ফাইল শেয়ারিং কি??

এখন আর কাউকে বলতে হবে না ফাইল শেয়ারিং কি? প্রযুক্তিনির্ভর বিশ্বের সবাই ফাইল শেয়ারিং এর সাথে খুবই পরিচিত। অনলাইনে ফাইল শেয়ার করার অনেক মাধ্যম রয়েছে যার মাধ্যমে আপনি খুব সহজেই অনলাইনে যে কারো সাথে যে কোন ফাইল আদান প্রদান করতে পারবেন। কিন্তু অফলাইনে থেকে ফাইল শেয়ার করার বিষয়টি অনেকেই জানে না জানলেও অনেক বাজে অ্যাপের মাধ্যমে তারা ফাইল শেয়ার করে। এই বাজে এর মাধ্যমে ফাইল শেয়ার করলে নিজের ফোন এবং অনেক কিছু ক্ষতি হয়। অফলাইনে যেকোন ফাইল শেয়ার করতে গেলে আপনাকে অবশ্যই অ্যাপের সাহায্য নিতে হবে আপনি যার সাথে ফাইল শেয়ার করবেন তার ফোন এবং আপনার ফোনে সেম অ্যাপটি ইনস্টল করা লাগবে অনেকগুলো অ্যাক্সেস এর মাধ্যমে আপনি যেকোন ফাইল শেয়ার করতে পারবেন। তো আজকে আমি গুগলের মাধ্যমে কিভাবে অফলাইনে থেকে দুটি ফোনের মাধ্যমে যেকোন ফাইল শেয়ার করতে পারবেন সে বিষয়টি দেখাবো।

ফাইলস শেয়ারে যে ভুলগুলো করি

আমরা জানি এখন স্মার্ট ফোনের ফাইল শেয়ার করতে গেলে অবশ্যই অ্যাপ এর সাহায্য নিতে হবে অ্যাপ ছাড়া আপনি কোন ফাইল শেয়ার করতে পারবেন না। কিন্তু আমরা অনেকে আছি ফাইল শেয়ার করার জন্য খুব বাজে বাজে অ্যাপ ব্যবহার করে থাকি। যে অ্যাপ গুলো তে এড শো করে এবং এড গুলো খুবই জঘন্য। যেগুলো এডাল্ট বললেই চলে এবং এই অ্যাপ গুলো আপনার ফোনের জন্য খুবই ক্ষতিকর। অ্যাপ টি যখন আপনার ফোনে ব্যাকগ্রাউন্ডে রান করা থাকে তখন আপনার notification-এ খুব জঘন্য অ্যাড শো করে সে জন্য অনেকেই এই অ্যাপ গুগল ইউজ করা ছেড়ে দিয়েছে আবার অনেকেই জানেনা ফাইল শেয়ার করার জন্য এর থেকে আরও খুব ভালো অ্যাপ রয়েছে। সেই অ্যাপটি যদি গুগলেরই হয়ে থাকে তাহলে তো আর কোন কথাই নেই। আজকে আমরা দেখাবো গুগলের অফিশিয়াল অ্যাপ দিয়ে কিভাবে আপনি অফলাইনে বসে যে কারো ফোনে ফাইল শেয়ার করতে পারবেন।
তো এখনো যাদের ফোনে খারাপ অ্যাপস গুলো রয়েছে সেগুলো ডিলিট করে দিন। আমরা চাই না যে আমাদের ফোনে কোনো বাজে অ্যাপ র‍্যান থাকুক। আর যেহেতু গুগল এর মাধ্যমে আমরা ফাইলে শেয়ার করবো সেহেতু আমাদের সিকিউরিটি নিয়ে চিন্তা করতে হবে না আমরা জানি আমাদের জন্য গুগল কতটা ট্রাস্টেট। আর তা ছাড়া বড় সুবিধা হলো যে এই গুগল ফাইল শেয়ার অ্যাপ টি তে বাজে অ্যাড তো দুরের কথা কোনো অ্যাডও দেয় না। তাহলে এত্ত চালো সুবিধা থাকতে ক্যানো আমরা অন্য কোম্পানির বাজে এবং আপনার ফোনের জন্য খুব ক্ষতি কর অ্যাপ ব্যাবহার করবো। তাহলে চলুন এখনি গুগল এর অ্যাপ টি ইন্সটল করি। আপনি খুব সহজেই গুগলের অ্যাপটি ইন্সটল করতে পারবেন ফোনে।

যে অ্যাপ এর মাধ্যমে ফাইল শেয়ার করবেন

আমরা আগেই বলে দিয়েছি আজকে আলোচনা করবো গুগলের ফাইল অ্যাপ নিয়ে। আপনি যার মাধ্যমে আপনি খুব সহজেই অফলাইনে যে কারো ফোনে ফাইল শেয়ার করতে পারবেন। আজকে যে অ্যাপ টি নিয়ে আলোচনা করা হলো সেই অ্যাপটির নাম হল Files by Google । এই অ্যাপটি অফিশিয়ালি ইনস্টল থাকে সবার ফোনে আর যাদের ইনস্টল নাই তারা খুব সিম্পলি প্লে স্টোর থেকে Files by Google লিখে সার্চ করে অ্যাপটি ডাউনলোড করে নিতে পারেন। অ্যাপ টি প্রায় সকল মোবাইল এ সুন্দর ভাবে সাপোর্ট করবে।

আপনি ফাইল শেয়ার ছাড়াও আরো যে যে সুবিধা পাবেন অ্যাপ টি থেকে।

    • আপনি এখান থেকে প্রায় যেকোনো ফরম্যাট এর ফাইল ওপেন করতে পারবেন। আপনি সব কিছু ভিডিও অডিও ইমেজ যেকোনো কিছু খুব সহজে দেখতে পারবেন। সাথে ইডিট করতে পারবেন যেকোনো ইমেজ।
    • আপনার মেমোরি তে থাকা সকল কিছু এখানে দেখতে পারবেন। আপনি প্রত্যেক টা ফাইল সাজানো আকারে দেখতে পারবেন এবং খুব সহজে সার্চ বারের মাধ্যমে যেকোনো জিনিস সার্চ করে পেতে পারেন।
    • আপনার মেমোরি তে থাকা সকল ফাইলে তারিখ অনুযায়ী সাজানো থাকবে। এতে কোন তারিখে এর কোন ফোটো বা ফাইল তা খুব শজে জানা যাবে।
    • Files by Google এর মাধ্যমে আপনি বড় বড় ফাইলে খুব সহজে এবং খুব অল্প সময়ে ডিলিট করতে পারবেন। এজন্য এই অ্যাপ এ একটি clean নামে অপশন আছে যা দিয়ে ফাইল ডিলিট করতে হয়।
    • এছাড়াও আপনি যেকোনো ফাইল কে favorite করতে পারবেন পড়ে এগুলা favourite option এ পাবেন। এখানে আরো রয়েছে ফাইল হাইড অপশন যার মাধ্যমে আপনি যে-কোন ফাইল খুব সহজে পিন সিস্টেম এর মাধ্যমে হাইড করতে পারবেন।

যেভাবে ফাইল সেয়ার করবেন

এতক্ষণে হয়তো আপনি ফাইল বাই গুগল অ্যাপ টি ডাউনলোড করে নিয়েছেন। তো অ্যাপটি ডাউনলোড করে নেওয়া হলে আপনি প্রথমে অ্যাপ টি ইন্সটল করে। নিবেন ইনস্টল করার পরে অ্যাপ টি ওপেন করে নিবেন। তারপর অ্যাপটি ওপেন হবে এবং আপনার মেমোরিতে থাকা সকল ফাইল শো করবে তো আপনি যদি ফাইল শেয়ার করতে চান তাহলে নিচে তিনটি অপশন দেখতে পারবেন অইখানে ক্লিক করুন। নিচে স্ক্রিনশট এর মাধ্যমে বুঝিয়ে দেওয়া হল।


তারপর এখানে একটি অপশন দেখতে পারবেন শেয়ার। ওখানে ক্লিক করুন এখন আপনি যদি এখান থেকে ফাইল রিসিভ করতে চান তাহলে রিসিভ অপশনে ক্লিক করুন আর সেন্ড করতে চাইলে সেন্ড অপশনে ক্লিক করুন নিচের স্ক্রিনশটটি লক্ষ করুন।


প্রথমত আপনাকে কিছু কাজ করতে হবে এখানে আপনাকে লোকেশন অন করতে হবে সাথে ওয়াইফাই ওপেন করতে হবে। তারপর আপনাকে নেম সেট করতে হবে। যদি আপনি প্রথমবার ফাইল সেন্ড করে থাকেন এই অ্যাপের মাধ্যমে তাহলে অবশ্যই আপনাকে নেম সেট করতে হবে।


এরপর আপনি যে ফোনের সাথে ফাইল শেয়ার করতে চান সে ফোনেও ঠিক একই কাজ করবেন এরপর আপনি ওই ফোনের অ্যাকাউন্টে দেখতে পারবেন এবং ওখানে ফাইল সেন্ড করার অপশন পেয়ে যাবেন।

এভাবেই আপনি খুব দ্রুত আপনার ফোনের সকল কিছু খুব সাবধানে রেখে ফাইল শেয়ার করতে পারবেন তো আজকে আমরা এ বিষয়ে আলোচনা করলাম পরবর্তীতে আরও গুরুত্বপূর্ণ কোন বিষয় নিয়ে আপনাদের সামনে হাজির হবে সে পর্যন্ত ভালো থাকুন সুস্থ থাকুন আমাদের সাইটের সঙ্গেই থাকুন আর আপনার যদি টিউটোরিয়াল টি ভালো লেগে থাকে তাহলে অবশ্যই আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করতে ভুলবেন না আল্লাহ হাফেজ

admin

আমি সাগর। আমি একজন ব্লগার এবং ইউজার ইন্টারফেজ ডিজাইনার। আমি প্রতিনিয়ত চেষ্টা করি আমার ব্লগের মাধ্যমে নতুন নতুন তথ্য শেয়ার করতে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button